উপকূলীয় কয়রায় চলতি বছরেই শুরু হবে টেঁকসই বেঁড়িবাঁধ নির্মাণের কাজ: সাংসদ বাবু

27

ওবায়দুল কবির সম্রাট, কয়রা : খুলনা-৬ (কয়রা-পাইকগাছা) আসনের সাংসদ আলহাজ্ব আক্তারুজ্জামান বাবু বলেছেন, জলবায়ুর পরিবর্তন জনিত বিরুপ প্রভাবে উপকুলীয় এলাকায় ৬০ দশকের নির্মিত’পাউবো’র বেঁড়িবাধ ভারসাম্য হারিয়ে ফেলেছে। এ জন্য ভবির্ষ্যতে এ অঞ্চলের মানুষের নিরাপদে বসবাসের জন্য মজবুত ও স্থায়ী বেঁড়িবাধের দাবীতে জাতীয় সংসদে বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দৃষ্টি আকর্শন করা হলে তিনি সংশ্লিষ্ট মন্ত্রনালয়কে দ্রুত টেকসহ বেঁড়িবাধ নির্মানের নির্দেশনা দেন।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা মতে উপকূলে টেকসই বেড়িবাঁধ নির্মাণে সরকার আট হাজার কোটি টাকার চারটা প্রকল্প হাতে নিয়েছে। এর মধ্যে খুলনা ও সাতক্ষীরা উপকূলে চার হাজার কোটি টাকা। চলতি বছরেই শুরু হবে এসব প্রকল্পের কাজ। ৪ জুন শুক্রবার বেলা ১২ টায় পরিকল্পনা কমিশনের ও পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তারা ঘূর্ণিঝড় ইয়াছে ভেঙে যাওয়া কয়রার উত্তর বেদকাশী ইউনিয়নের গাতির ঘেরি ক্লোজার পরিদর্শনকালে উপকূলবাসীর উদ্দেশ্যে তিনি (সাংসদ) এ সব কথা বলেন।

তিনি বলেন স্থানীয় জনগণ ও বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ অনুযায়ী জলবায়ু পরিবর্তন ও দুর্যোগকে মাথায় রেখে স্থায়ী ও মজবুত বেড়িবাঁধ নির্মাণ করা হবে। যার নিচে ১০০ ফুট ওপরে ৩০ ফুট এবং উচ্চতা হবে ৩০ ফুট। এজন্য শুধু মাত্র ১৪ নং পোল্ডারে ৯৫৭ কোটি ৩৮ লক্ষ টাকার প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে। তিনি আরো বলেন শুধু বেড়িবাঁধ নয় পুরো উপকূলের উন্নয়নে সরকার বিশেষ উদ্যোগ নিয়েছে।

এক্ষেত্রে হাওর উন্নয়ন বোর্ডের ন্যায় উপকূলীয় উন্নয়ন বোর্ড গঠনের বিষয় ও সরকার বিবেচনা করছে। আগামীতে বাঁধের ওপর দিয়ে রাস্তা নির্মাণ ও বাঁধের দুপাশে বনায়ন করতে হবে বাঁধ রক্ষণাবেক্ষণ ও উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়নে এলাকার জনগণ সরকারের সঙ্গে থাকবেন বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। তিনি বলেন এজন্য ১০০ মিটারের মধ্যে চিংড়ি ঘের তৈরিতে সরকারের দেওয়া নিষেধাজ্ঞা দ্রুত কার্যকর করা হবে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন পরিকল্পনা কমিশন সেচ অনুবিভাগের যুগ্ম-প্রধান মোঃ এনামুল হক, পরিকল্পনা কমিশনের উপসচিব (পানি সম্পদ) এ কে এম আবুল কালাম আজাদ, আই এম ই ডি পরিচালক উপসচিব মোহাম্মাদ শাহাদাত হোসাইন, পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের উপসচিব মোহাম্মদ লুৎফর রহমান, পানি উন্নয়ন বোর্ড দক্ষিণ-পশ্চিম অঞ্চলের প্রধান প্রকৌশলী মোহাম্মদ রফিক উল্লাহ, পাউবো খুলনার তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মোঃ আবুল হোসেন, সাতক্ষীরা পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী রাশেদুর রহমান, পাউবো কর্মকর্তা মশিউল আবেদীন, কয়রা থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃ রবিউল হোসেন,উপজেলা আওয়ামীলের সহ-সভাপতি এ কে এম ফজলুল হক,যুগ্ম সাধারন সম্পাদক জাফরুল ইসলাম পাড়, সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম বাহারুল ইসলাম, প্রচার সম্পাদক হারুন অর রশিদ, আ’লীগ সদস্য ও কপোতাক্ষ কলেজের অধ্যাক্ষ আদ্রিশ আদিত্য মন্ডল, উত্তর বেদকাশী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান সরদার নূরুল ইসলাম কোম্পানী, সাধারন সম্পাদক গণেশ মন্ডল, মহারাজপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক মাস্টার খয়রুল আলম,আওয়ামীলীগ নেতা ও ইউপি সদস্য হরষিত মন্ডল,রমেশ চন্দ্র মন্ডল, আছের আলী, মাছুদ রানা,জেলা যুবলীগের নেতা শামীম সরকার, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক মেজবাহ উদ্দিন মাছুম, উপজেলা যুবলীগ নেতা এ্যাড.আরাফাত হোসেন, জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি আবু সাঈদ খান,উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শরিফুল ইসলাস টিংকু, সাধারন সম্পাদক আমিনুল হক বাদল, সহ-সভাপতি তরিকুল ইসলাম ছাত্রলীগনেতা ফেরদাউস, মোক্তারুল প্রমুখ।