অভয়নগরে ভালোবেসে বিয়ের পর যৌতুকের দাবী এনে স্ত্রীকে মারপিট করে হত্যা চেষ্টার অভিযোগ

8
লাল সবুজের কথা- Lal Sobujer Kotha

আজিজুর রহমান, অভয়নগর থেকে ফিরে : অভয়নগরে ভালোবেসে বিয়ের পর যৌতুকের দাবী এনে স্ত্রীকে মারপিঠ করে হত্যার চেষ্টা করেছে স্বামী বলে অভিযোগ উঠেছে। আহত ওই গৃহবধূ স্থানীয় চিকিৎসা নিয়েছে। এঘটনায় ওই গৃহবধূ বিচার চেয়ে স্বামীর বিরুদ্ধে অভয়নগর ব্রাক অফিস বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, কয়রা উপজেলার মদিনাবাদ গ্রামের মুজিবুর রহমান মোড়লের মেয়ে নাজমুন্নাহার খাতুন (২৪) এর সাথে অভয়নগর উপজেলার পায়রাকুটা গ্রামের মৃত কওছার আলী খাঁর ছেলে আবু বক্কার খাঁ (২৬) এর মোবাইল ফোনে দীর্ঘদিন ধরে প্রেমের সম্পর্ক চলে আসছিল। পরবর্তীতে উভয় পক্ষের সম্মতিতে ২০১৬ সালে ইসলামী শরিয়ত মোতাবেক তাদের বিবাহ সম্পন্ন হয়।

গৃহবধু নাজমুন্নাহার খাতুন সাংবাদিকদের জানান, বিয়ের পর থেকে আমার স্বামী প্রায় সময় যৌতুকের দাবী এনে আমাকে মারপিঠ করাসহ শারীরিক নির্যাতন চালাতো। শত নির্যাতন সহেও আমি স্বামীর সংসার করে আসছি। হঠাৎ আমার স্বামী আবু বক্কার খাঁ আরেকটি মেয়েকে বিবাহ করে বাড়িতে নিয়ে আসে। এরপর নির্যাতনের মাত্রা আমার ওপর আরও বেড়ে যায়। আমি নির্যাতন সইতে না পেরে স্বামীর বিরুদ্ধে অভয়নগর ব্রাক অফিসে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করি।

স্বামীর পরিবার আর নির্যাতন করবে না বলে আমাকে বাড়িতে নিয়ে যায়। সর্বশেষ গত ২৪ ফেব্রুয়ারী দুপুরে ১০ হাজার টাকা যৌতুকের দাবী এনে আমার স্বামী আমাকে মারপিঠ করে হত্যার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়ে আমাকে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেয়।

এ ব্যাপারে আবু বক্কার খাঁর মুঠোফোনে জানতে চাইলে তিনি সাংবাদিকদের জানান, আমার স্ত্রীকে আমি মারপিঠ করেছি তাতে কি হয়েছে। আপনারা যা পারেন তাই লেখেন আমার বিরুদ্ধে। আমার কিছু আসে-যায় না।