অঝোড়ে কাঁদছেন নেইমার, বুকে জড়িয়ে ধরে সান্ত্বনা মেসির

31

স্পোর্টস ডেস্ক : আর্জেন্টাইনদের জন্য কোপা আমেরিকার শিরোপাটা যতটা স্বস্তির-আনন্দের, শিরোপা হাতছাড়া করাটা ঠিক ততটাই কষ্টের ব্রাজিলিয়ানদের জন্য। যে মাঠে বিশ্বকাপ ট্রফি জেতার সুযোগ হাতছাড়া হয়েছিল মেসির, সেই মারাকানা স্টেডিয়ামেই আজ লাতিন আমেরিকার শ্রেষ্ঠত্বের মুকুট মাথায় নিলেন আর্জেন্টাইন ফেনোমেনন।

এটি শুধু নিছক জয় নয়, এটি সেই মাহেন্দ্রক্ষণ যেটি হাতছাড়া হয়ে যাওয়ায় খেলাটাই ছেড়ে দিয়েছিলেন মেসি।

চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীকে হারিয়ে শিরোপা জিতে আর্জেন্টিনার ঘরে আজ আনন্দের হিল্লোল বইয়ে চলেছে। আর নিজ মাঠে ‘পরম শত্রুকে’ পেয়েও পরাস্ত করতে না পারার আক্ষেপ সহজে ভুলবে না নেইমার।

সেই উপলব্ধি করেই কিনা ম্যাচ শেষে নেইমারের বাঁধভাঙা কান্না। জার্সি টেনে মাথা নিচ দিকে দিয়ে অঝোড়ে কান্না করছিলেন নেইমার।

ফাইনালে ১-০ গোলে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন ব্রাজিলকে হারিয়ে মেসিরা যেখানে আনন্দ-উল্লাস করেছেন, সেখানে চোখের জলে কেঁদে ভাসিয়েছেন নেইমার।

শুধু নেইমারই নন, বাকিদের চোখ বেয়েও নামে এই অশ্রুধারা। অথচ ২০১৬ সালে একই রকম ব্যর্থতায় চোখের জলে ভেসেছিলেন মেসিরাও। ভাগ্যের ফেরে সেই মেসিদের জায়গায় এখন নেইমাররা।

পাহাড়সম যন্ত্রণার মাঝেও অশ্রুসিক্ত নয়নে মেসির কাছে ছুটে যান নেইমার। বোঝাই গেছে মেসিকে অভিনন্দন জানাতে গেছেন তিনি।

পাশাপাশি নিজেদের উল্লাসের মাঝে বন্ধুর এই দুঃখদিনে নেইমারকেও সান্ত্বনা দিয়েছেন মেসি। একফাঁকে নেইমারকে জড়িয়ে ধরে বেশ কিছুক্ষণ তার পাশেই ছিলেন। হয়তো বলতে চেয়েছেন, ‘হতাশ হইও না বন্ধু। সুযোগ আবার আসবে।’

অথচ এমনটা হবে ভাবা যায়নি। অতীত বলেছে, কোপায় স্বাগতিক ব্রাজিল মানেই শিরোপা নিশ্চিত। এর ওপর নিজের ঘরে সেই সুযোগটি হাতছাড়া করলেন নেইমার।

মাঠের যে কোণে আর্জেন্টিনার সমর্থকরা ছিলেন, সেখানে গিয়ে উল্লাসে মাতে আর্জেন্টিনার ফুটবলাররা।

লিওনেল মেসিকে তুলে হাওয়ায় ভাসিয়ে উল্লাস করেন সতীর্থরা।

২৮ বছর পর কোপা জিতল আর্জেন্টিনা।

২০১৬ সালে কোপা আমেরিকার ফাইনালে পেনাল্টি শুটআউট থেকে গোল করতে ব্যর্থ হয়ে অবসরের ঘোষণাও দিয়েছিলেন লিওনেল মেসি।

যদিও দ্রুতই ফিরে এসেছেন এবং পরবর্তীতে আর্জেন্টিনার অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি।

শেষ পর্যন্ত কোপা আমেরিকা দিয়ে প্রথম কোন আন্তর্জাতিক ট্রফি জয়ের স্বাদ পেলেন সময়ের অন্যতম সেরা ফুটবলার লিওনেল মেসি।